মঈনুদ্দিনকে এক্সট্রাডাইটের দাবীতে ঘাদানিক ডাউনিং ষ্ট্রীটে স্মারকলিপি দিয়েছে(ভিডিও)
লন্ডন এইদেশ রিপোর্ট, রবিবার, ডিসেম্বর ১৪, ২০১৪


চৌধুরী মঈনুদ্দিনকে এক্সট্রাডাইটের দাবীতে ১০ নং ডাউনিং ষ্ট্রীটে স্মারকলিপি পেশ (ভিডিও)

সৈয়দ শাহ সেলিম আহমেদ- লন্ডন থেকে


আজ ১৪ই ডিসেম্বর- শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে বিনম্র শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় লন্ডনের প্রবাসী বাংলাদেশীরা দিনটি পালন করলেন। এ উপলক্ষে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি যুক্তরাজ্য শাখা সহ সমমনা রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক দলগুলোর উদ্যোগে যুদ্ধাপরাধী মামলায় দণ্ড প্রাপ্ত আসামী চৌধুরী মঈনুদ্দিনকে বাংলাদেশে এক্সট্রাডাইটের দাবীতে সকাল দশটা থেকে স্থানীয় আলতাব আলী পার্কে প্রবাসী বাঙালিরা হাঙ্গার স্ট্রাইক পালন করেন। দিনব্যাপী কর্মসূচীর শুরুতে হাঙ্গার স্ট্রাইক চলে বেলা ১.৩০ পর্যন্ত।শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মৃতির উদ্দেশ্যে পুষ্পস্তবক অর্পণ সহ আলোচনা অনুষ্ঠান ও সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়।

আওয়ামীলীগ সভাপতি সুলতান শরীফ-ভিডিও


বিকেল ৬ টায় ছিলো ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর সরকারি অফিস ১০ নং ডাউনিং ষ্ট্রীটে স্মারক লিপি পেশ ও প্রধানমন্ত্রীর অফিসের সম্মুখে মানব বন্ধন ও অবস্থান। বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা সহ ঘাদানিক ইউকের ব্যানারে তীব্র শীত আর বৈরি আবহাওয়া উপেক্ষা করে প্রবাসী বাংলাদেশী নারী পুরুষ, রাজনীতিবিদ, সংবাদ কর্মী, লেখক ও শুভানুধ্যায়ীরা মানব বন্ধনে অংশ গ্রহণ করেন। মানব বন্ধন পূর্বে ঘাদানিক ইউকের পক্ষে কেন্দ্রীয় সদস্য ও মানবাধিকার কর্মী আনসার আহমদ উল্লাহ এবং ইউকে ঘাদানিকের পক্ষে জামাল খান প্রধানমন্ত্রীর অফিসে স্মারক লিপি পেশ করেন। স্মারকলিপিতে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর কাছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের দণ্ড প্রাপ্ত পলাতক চৌধুরী মঈনুদ্দিনকে বাংলাদেশে এক্সট্রাডাইট করার আবেদন জানানো হয়েছে বলে আনসার আহমদ উল্লাহ ও জামাল খান নিশ্চিত করেছেন।
আসিফ দেবজোতিক-গণজাগরণ মঞ্চ, ঢাকা-


স্মারকলিপি শেষে ডাউনিং ষ্ট্রীটের সামনে সমবেত প্রবাসীরা হাতে লুণ্ঠন, মোমবাতি, টর্চ লাইটের আলো জেলে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মৃতির উদ্দেশ্যে শ্রদ্ধা প্রদর্শন করেন। এ সময় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগের সভাপতি সুলতান শরীফ, আজিজ চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা খলিল কাজী, মুক্তিযোদ্ধা ফয়জুর রহমান খান, ঢাকা থেকে আগত গণজাগরণ মঞ্চের সংগঠক আরিফ দেবজ্যোতিক, ইউকে ঘাদানিকের সেক্রেটারি সৈয়দ আনাস পাশা, ভাইস চেয়ারম্যান সৈয়দ এনামুল ইসলাম প্রমুখ।
মুক্তিযোদ্ধা ফয়জুর রহমান খান-

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে টর্চ ও লুণ্ঠন হাতে উপস্থিত ছিলেন ডকল্যান্ড থিয়েটারের স্মৃতি আজাদ, রাজনৈতিক এক্টিভিস্ট সৈয়দা নাজনীন সুলতানা শিখা, সকলের প্রিয় মুখ পুষ্পিতা, অজন্তা রায়, এডভোকেট মুজিবুল হক মনি সহ আরো অনেকেই।

বক্তারা সকলেই একবাক্যে চৌধুরী মঈনুদ্দিনকে বাংলাদেশে এক্সট্রাডাইট করার জন্য ব্রিটিশ সরকারের কাছে জোর দাবী জানান।
সৈয়দ আনাস পাশা-ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি ইউকে-

গণজাগরণ মঞ্চের সংগঠক আরিফ জেবতিক এতো ঠাণ্ডার মধ্যেও ব্রিটিশ বাংলাদেশীরা এভাবে একজন চিহ্নিত যুদ্ধাপরাধীর বিচার ও বিচারের সাজা ভোগের জন্য বাংলাদেশে এক্সট্রাডাইট করার দাবীতে যে মানব বন্ধন ও সমাবেশ করছেন, সেজন্যে ধন্যবাদ জানান এবং একই সাথে চৌধুরী মঈনুদ্দিনের মতো কুখ্যাত বুদ্ধিজীবীদের হত্যাকান্ডের সাথে সরাসরি জড়িত খুনিকে দেশে পাঠানোর জন্য ব্রিটিশ সরকারের উপর অব্যাহত চাপ বৃদ্ধির উপর গুরুত্বারোপ করেন।
মুক্তিযোদ্ধা খলিল কাজী-

সব শেষে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি ইউকে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের সমাপ্তি টানেন ও সকলকে অংশ গ্রহণের জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

salim932@googlemail.com
14th Dec 2014, London.